Sunday , May 19 2019
Home / Different News / পরকীয়ায় মেতেছিলেন বউ, হাতে-নাতে প্রেমিক সহ বউকে ধরে যে কাজটি করলেন স্বামী!

পরকীয়ায় মেতেছিলেন বউ, হাতে-নাতে প্রেমিক সহ বউকে ধরে যে কাজটি করলেন স্বামী!

পরকীয়ায় মেতেছিলেন বউ। হাতে-নাতে প্রেমিক সহ বউকে পাকড়াও করে গ্রামের মোড়লদের দিয়ে সালিশি সভা বসিয়ে তাঁদের পরস্পরকে সাতে পাকে বাঁধতে বাধ্য করলেন বউর স্বামী।

ঘটনাটি ভারতের জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জের হাসুয়াপাড়ার ঘটনা৷ তবে পুলিশকে না জানিয়ে ওই বধূর স্বামী ও গ্রামের মোড়লরা যেভাবে নিজেরাই হাতে আইন তুলে নিয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ তবে বধূর পরকীয়া থেকে সাতপাকে বাঁধা পড়ার রসালো কাহিনী রাজগঞ্জের গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে মানুষের মুখে মুখে ঘুরছে৷

স্থানীয় সূত্রের খবর, সালিশিসভার নিদান মেনে সাত পাকে বাঁধা পড়তে বাধ্য হয়েছেন বীণা রায় ও হরিপদ রায়৷ বীণার স্বামী মলিনচন্দ্র রায়৷ ঘটনাটি বুধবার রাতের৷ কানাঘুষোয় স্ত্রীর পরকীয়ার কথা কানে গিয়েছিল মলিনচন্দ্রর৷ তিনিও তক্কে তক্কে ছিলেন৷

রাতে ঘুমনোর ভান করে বিছানায় শুয়েছিলেন তিনি৷ রাত তখন সওয়া বারোটা৷ দরজায় টোকার আওয়াজ৷ পা টিপে টিপে চুপিসারে দরজা খুললেন বীণা৷ ঘরে প্রবেশ ‘প্রেমিক’ হরিপদর৷ ফিসফাস কথা শুরু৷ এরপরই দু’জনে ঘনিষ্ঠ হতে যাবেন- ঠিক এমন সময় মলিন শীতের রাতের অন্ধকারকে খান খান করে চিৎকার শুরু করেন,‘ধরে ফেলেছি পরকীয়া। ধরে ফেলেছি৷

নিজের স্ত্রী ও পরপুরুষকে ঘরবন্দী করে রেখে তিনি রাতের অন্ধকারেই যান গ্রামের মোড়লদের বাড়ি৷ মলিনের বাড়ির সামনে রাতেই বসে বিচারসভা৷ সেখানেই পরকীয়ার জেরে বধূর সঙ্গে তাঁর প্রেমিকের সাত পাকে বাঁধার নিদান দেন মোড়লরা৷ বধূকে বাধ্য করা হয় লিখিত মুচলেকা লিখে তাঁদের অবৈধ সম্পর্কের কথা স্বীকার করতে৷ মলিন বলেন, ‘‘এমন বউ থাকার চেয়ে না থাকা ঢের ভালো৷ ওঁর আর কোনও দায়িত্ব আমার রইল না৷’’

Check Also

হঠাৎ আকাশ থেকে অঝোরে পড়ছে মাছ! তাজ্জব এলাকাবাসী, কেন হয় মাছ বৃষ্টি জানেন?

হঠাৎ আকাশ থেকে- ঝড়-ঝাপটা কিছু নেই, হঠাৎ আকাশ থেকে অঝোরে পড়ছে মাছ! তাজ্জব এলাকাবাসী- মেক্সিকোর টাম্পিকো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

[X]